১২টি উবুন্টু ট্রিকস যা অনেকেই জানেন!

আসসালামু আলাইকুম। এই পোস্টে কিছু উবুন্টু ট্রিকস শেয়ার করছি যা অনেকেরই জানা আছে, তবে কারো কারো হয়ত জানা নেই। ছোটখাট কয়েকটি ব্যাপার, যা আসলে আপনার এক্সপেরিয়েন্সকে ইম্প্রুভ করতে পারে।

১. ক্লিক টু মিনিমাইজ

উবুন্টু ডকের ডিফল্ট বিহেভিয়র হলো ক্লিক করলে কোন অ্যাপ ওপেন বা একটিভ হয়, কিন্তু একটিভ অ্যাপ আইকনে ক্লিক করলে মিনিমাইজ হয় না। ভালো কথা, এই অপশনটি পরিবর্তন করা জাস্ট একটি কমান্ডের ব্যাপার, নিচের কমান্ডটি টার্মিনালে রান করুন:

gsettings set org.gnome.shell.extensions.dash-to-dock click-action 'minimize'

২. ফায়ারফক্স টাইটেলবার হাইড

ফায়ারফক্স চালানোর সময় বামদিকের ডক, উপরের প্যানেল, সাথে ফায়ারফক্সের টাইটেলবার মিলে স্ক্রিনের বড় অংশ দখল করে রাখে। তবে সহজে়ই টাইটেলবার হাইড করা যেতে পারে। ফায়ারফক্স মেনু থেকে Customize এ ক্লিক করতে হবে এবং নিচে বাম কোণার Title Bar আনচেক করে দিতে হবে। এছাড়া ডক অটোহাইড বা সাইজ পরিবর্তনের অপশন রয়েছে Settings অ্যাপে।

৩. ফায়ারফক্স থেকে সফটওয়্যার ইন্সটল

ফায়ারফক্সে ব্রাউজ করার সময় একটা সফটওয়্যার ইন্সটলের প্রয়োজন হলো। আপনি সফটওয়্যার সেন্টার থেকে ইন্সটল করতে পারেন কিংবা টার্মিনাল ব্যবহার করতে পারেন। তবে আমার কাছে সবচেয়ে মজার মেথড মনে হয় AptURL। এটা খুব মজার একটি মেথড, শুধু ফায়ারফক্সের এড্রেসবারে লিখুন apt://packagename। একাধিক প্যাকেজের ক্ষেত্রে মাঝে কমা দিন। যেমন, apt://gimp,inkscape এরকম। এন্টার দিন, AptURL এর সাহায্যে লিঙ্কটি ওপেন করুন, ইন্সটল করুন!

৪. টার্মিনালে অনেক সফটওয়্যার একসাথে ইন্সটল

ফায়ারফক্সের মত টার্মিনালেও সফটওয়্যার ইন্সটল করা খুবই সহজ। একাধিক সফটওয়্যার একসাথে ইন্সটল করতে এটা আরো বেশি কার্যকর, কেননা এখানে বা। কমান্ড হবে: sudo apt install gimp inkscape krita এরকম। মানে sudo apt install লিখে তারপর স্পেস দিয়ে দিয়ে প্যাকেজের নাম লিখতে হবে।

এরপর পাসওয়ার্ড দিতে হবে, তারপর কী কী প্যাকেজ ইন্সটল হবে, ডাউনলোড ও ইন্সটল সাইজ কত হবে এরকম তথ্য দেখিয়ে y/N কনফার্ম করতে বলা হবে, y বা এন্টার চাপতে হবে এবং তারপর আর কিছুই না, ডাউনলোড-ইন্সটল সব অটোমেটিকলি হবে। একইভাবে snap এর ক্ষেত্রে sudo snap install স্পেস দিয়ে দিয়ে প্যাকজগুলোর নাম।

৫. -y

৪ নম্বরের সাথে আরেকটা টাইমসেভার। ইন্সটলের সময় পাসওয়ার্ড প্রদানের পর কী কী ইন্সটল হবে ও সাইজ দেখিয়ে y/N কনফার্মেশন চাওয়া হয়। আগেই -y যুক্ত করে দিলে তা আর প্রয়োজন হবে না। যেমন sudo apt install -y gimp। অবশ্য যদি আপনি সাইজ বা ডিটেইল দেখে নিতে চান, সেক্ষেত্রে -y অংশটি লিখবেন না। একইভাবে PPA এড করাসহ কয়েকটি ক্ষেত্রে -y যোগ করে দেয়া যেতে পারে।

৬. উবুন্টু ডকে ডাইনামিক ট্রান্সপ্যারেন্সি

উবুন্টু ১৭.১০ থেকে ১৮.১০ ভার্সন পর্যন্ত ডাইনামিক ট্রান্সপ্যারেন্সি ফিচারটি এনাবল রেখেছিলো। অর্থাৎ, যখন কোন উইন্ডো ডকের স্পর্শে আসতো, তখন ট্রান্সপ্যারেন্সি কমে যেত। ১৯.১০ থেকে তা ডাইনামিক থেকে ফিক্সড করে দেয়া হয়। তবে আপনি ডকে ডাইনামিক ট্রান্সপ্যারেন্সি সহজেই যুক্ত করতে পারেন, শুধু টার্মিনালে রান করুন:

gsettings set org.gnome.shell.extensions.dash-to-dock transparency-mode 'DYNAMIC'

পরবর্তীতে আবার আগের অবস্থায় ফিরে যেতে চাইলে কমান্ড দিন:

gsettings reset org.gnome.shell.extensions.dash-to-dock transparency-mode

৭. সয়াপ ফাইল যোগ করা

টার্মিনালে জাস্ট এক কমান্ডেই আপনি সয়াপ ফাইল যোগ করতে পারবেন। নিচের কমান্ডটি 2GB সাইজের সয়াপ যুক্ত করার জন্য, অন্য সাইজের জন্য 2G কথাটি পরিবর্তন করে নিন।

sudo fallocate -l 2G /swapfile && sudo chmod 600 /swapfile && sudo mkswap /swapfile && sudo swapon /swapfile && echo ‘/swapfile none swap sw 0 0’ | sudo tee -a /etc/fstab

আরো জানতে দেখুন: সয়াপ ফাইল যোগ করার সবচেয়ে সহজ উপায়

৮. স্ক্রিনশট

পুরো স্ক্রিনের স্ক্রিনশটের জন্য Print Screen বাটন (Scrool Lock এর বামে), একটিভ অ্যাপের জন্য alt+Print Screen, এরিয়া সিলেক্ট করে স্ক্রিনশটের জন্য shift+Print Screen বাটন প্রেস করতে হবে। অথবা একটি অ্যাপও আছে, Screenshot নামের, ব্যবহার করতে পারেন।

৯. স্ক্রিনকাস্ট

স্ক্রিনকাস্ট বা স্ক্রিন রেকর্ডিং ফিচারটি লেটেস্ট উবুন্টু ২০.১০-তে এটা কাজ করেনি কোন কারণে, হয়ত সফটওয়্যার বাগ যা আপডেটে ফিক্স করা হবে। অন্য ভার্সনগুলোতে আশা করি সমস্যা হবে না। একটি স্ক্রিন রেকর্ডের জন্য বাড়তি কোন সফটওয়্যার দরকার নেই। রেকর্ড শুরু ও শেষ করতে প্রেস করুন shift+alt+ctrl+R। তবে একটা লিমিটেশন আছে, ৩০ সেকেন্ড অটোমেটিকলি স্ক্রিনকাস্ট বন্ধ হয়ে যাবে।

১০. স্ক্রিনকাস্টের সময়সীমা পরিবর্তন

৩০ সেকেন্ড অনেক কম হয়ে যায়, নয় কী? তবে এটা সহজেই বাড়িয়ে নেয়া যায়। এজন্য কমান্ড:

gsettings set org.gnome.settings-daemon.plugins.media-keys max-screencast-length 3600

এখানে শেষের 3600 মানে হলো 3600 সেকেন্ড বা ১ ঘন্টা। অন্য কোন এমাউন্ট দিয়ে পরিবর্তন করে নিতে পারেন। আর এটা বেশি দিয়ে রাখলে সমস্যা নেই, রেকর্ড শুরুর পর প্রয়োজনমত সময়ে shift+alt+ctrl+R আবার চাপলে রেকর্ড শেষ হবে।

১১. সফটওয়্যার সেন্টারের apt ভার্সন ব্যবহার

উবুন্টু সফটওয়্যার সেন্টার হিসেবে ২০.০৪ ভার্সন থেকে Snap Store ব্যবহার হচ্ছে । কোন কারণে এটা আমি ২০.১০-তে ওপেনই করতে পারিনি (তবে এটা সম্ভবত শুধু আমার সমস্যা), আর এমনিতেও Snap কিছুটা ভারি হয়ে থাকে। তাই apt ভার্সন বেটার পারফর্মেন্স দিতে পারে। Snap ভার্সনকে apt ভার্সন দিয়ে রিপ্লেস করতে:

sudo snap remove snap-store && sudo apt install -y gnome-software

১২. neofetch কমান্ড ব্যবহার

লিনাক্স ব্যবহার করবেন, আর ভাব নিয়ে একটু স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করবেন না, তা কী হয়? আর ভাব বাড়িয়ে দেওয়ার একটি কমান্ড হলো neofetch। দুটো আসলে একই কাজের, যেকোনটি ব্যবহার করতে পারেন। লেখাতে AptURL লিঙ্ক করে দিয়েছি, ক্লিক করেই ইন্সটল করতে পারবেন। অথবা টার্মিনালে sudo apt install -y neofetch। তারপর কমান্ড দিন neofetch, স্ক্রিনশট (Print Screen) নিন, সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করুন! (screenfetch-ও ব্যবহার করতে পারেন, একই কাজ)।

বোনাস!

উপরের ছবিতে টার্মিনালে হালকা কাস্টমাইজ করা হয়েছে। কিছুই না আসলে, কালার প্রোফাইল পরিবর্তন আর ট্রান্সপ্যারেন্সি। এটা একদমই সহজ। Preferences>Profiles থেকে ডিফল্ট Profile থেকে বা নতুন প্রোফাইল তৈরি করে কাস্টমাইজ করে নিতে হবে। আশা করি ছবিটি বোঝার জন্য যথেষ্ট হবে।

3 Comments

  1. নতুন দুটি ট্রিক জানলাম। শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply