ওয়ালটনের পক্ষে থেকে সামনে আসতে পারে অনেকগুলো চমক!

স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে আমি সবসময়ই দেশীয় ব্র্যান্ডগুলো নিয়ে বেশি আগ্রহ বোধ করি, হয়ত এদিক দিয়ে আর অনেকের থেকে আমি ব্যতিক্রম। তো, দেশীয় ব্র্যান্ডগুলোর আপকামিং স্মার্টফোনগুলো নিয়ে জানার জন্য গীকবেঞ্চ প্রায়সময়ই ভালো একটি সোর্স এবং গীকবেঞ্চে ওয়ালটনের কিছু স্মার্টফোন দেখে আমি সত্যি খুবই এক্সাইটেড।

১. আসছে Walton Primo RX8 ও RX8 Mini

এই ডিভাইসদুটো নিয়ে আমি আগেই একটি পোস্ট করেছিলাম, দেখে নিতে পারেন এখান থেকে। RX8 Mini-তে SD660 প্রসেসর থাকছে। এখন কিন্তু আর SD660 ব্যবহার হয় না, পরবর্তীতে এর রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে SD665 ও আরো পরে SD662 এসেছে। আপনি হয়ত জানেন, RX7 Mini ছিলো Nokia 5.1 Plus (X5) এর রিব্র্যান্ড। কাজেই এটা RX7 Mini-র মতই একটি রিব্র্যান্ডিং হবে তা সহজেই বোধগম্য। সে হিসেবে হয়ত এটা Nokia 7 Plus বা 7.2 এর রিব্র্যান্ড হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। দেখা যাক!

কিছুদিন আগে RX7 ২২% ডিসকাউন্টে উইন্টার সেলে দেয়া হয়েছিলো, যেটা আমার কাছে একটা ক্লিয়ারেন্স সেলের মত মনে হয়েছে, অর্থাৎ, RX8 হয়ত তুলনামূলক আগেই আসবে, হয়ত মাসখানেক বা কিছু বেশির মধ্যে। RX8 Mini তার কিছু দেরিতে আসতে পারে। বাই দা ওয়ে, RX8 সিরিজে অ্যান্ড্রয়েড ১০ থাকছে, অ্যান্ড্রয়েড ১১ নয়।

২. RX7 Mini-তে Android 11? 🙄

গীকবেঞ্চে এটা পেলাম, দেখা যাচ্ছে RX7 Mini-তে Android 11। সম্ভবত এখানে অন্য কোন ঘটনা থাকতে পারে, RX7 Mini-তে এখন পর্যন্ত Android 9, Android 10-ই আসেনি, আর ওয়ালটন এরকম ভার্সন আপডেট দেয়ও না। কাজেই হয়ত কেউ ম্যানুয়ালি অন্য কোন রম ইন্সটল করেছে বা এরকম কিছু হয়ে থাকতে পারে, আমার আসলে এগুলো নিয়ে তেমন ধারণা নেই। জাস্ট এটা পেলাম, তাই শেয়ার করলাম। RX8 সিরিজে যেখানে Android 10, সেখানে এটা নিয়ে RX7 Mini ইউজারদের খুব বেশি উৎসাহী সম্ভবত না হওয়াই ভালো।

৩. Walton Primo R8-এ থাকছে Helio G35

Helio G সিরিজের চিপসেট দিয়ে আসতে চলেছে Walton Primo R8। এটা খুব সম্ভব RX8 সিরিজের পরে রিলিজ হবে, হয়ত দুতিন মাস পরে। তবে এখানে কিন্তু Android 11 থাকছে। থাকছে Helio G35। র‌্যাম দেয়া হয়েছে ৪ জিবি। সিম্ফনিও কিন্তু এই চিপসেট দিয়ে একটি ফোন সামনে আনতে পারে, Symphony Z35, যাতে খুব সম্ভব পাঞ্চহোলও থাকবে। এখানে বিস্তারিত।

৪. পরবর্তী ফ্ল্যাগশিপে থাকবে Helio G90t!

G সিরিজের চিপসেটের মধ্যে G35 একদমই এন্ট্রি রেঞ্জের। সেখানে G90t কিন্তু মিড বাজেটে বেশ পাওয়ারফুল চিপসেট এবং ওয়ালটন তাদের পরবর্তী ফ্ল্যাগশিপ, অর্থাৎ Walton Primo ZX4 আনতে যাচ্ছে G90t দিয়ে! ZX সিরিজে আগে তারা ৩০ হাজারের ওপরের বাজেটেও স্মার্টফোন এনেছে, আর অবশ্যই ওয়ালটনের ক্ষেত্রে এটি তাদের ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ। ZX3 এর দাম ছিলো ২৫০০০ টাকা, সেখানে ছিলো Helio P25, ৪ জিবি র‌্যাম।

ZX4 সেটি থেকে হিউজ রকম পাওয়ারফুল বলা যায়, দ্বিগুণ অর্থাৎ, ৮ জিবি র‌্যামের সাথে Helio G90t নিয়ে খুব শক্তিশালী একটি প্যাকেজ হতে পারে ZX4। তবে সময়টা বদলেছে, মার্কেট এখন অনেক কম্পিটিটিভ, ওয়ালটনও দামের দিক দিয়ে অনেক এগ্রেসিভ হয়েছে, আর অতীত অভিজ্ঞতায় তারা উচ্চ বাজেটে যথেষ্ট ভালো জায়গা করতে পারেনি, সবদিক মিলিয়ে আমার ধারণা এবার দাম ২২-২৩ হাজারে থাকতে পারে, যদি এর বেশি হয়, তাহলে Poco X3, realme 7 Pro এদের সাথে মার্কেটে জায়গা করা সম্ভবত খুব কঠিন হবে।

তবে ওয়ালটন একসময় চিপসেট দেখা যেত খুব দুর্বল দিত, ফোনের বাকি সব কনফিগ হয়ত খারাপ না, কিন্তু চিপসেটে একদমই যা-তা… সেখান থেকে তারা যে পাওয়ারফুল চিপসেটগুলোতে মুভ করছে, এটা কিন্তু একটা পজিটিভ সাইন বলতেই হয়। অথবা হয়ত মার্কেট কম্পিটিশন তাদের এমনটা করতে বাধ্য করছে…

পোস্টের তথ্যগুলো যেমনটা উল্লেখ করা হয়েছে, গীকবেঞ্চ থেকে নেয়া। এর বাইরে যে কথাগুলো বলেছি, যেমন সম্ভাব্য রিলিজের সময় বা এই বিষয়গুলো কিন্তু নিছকই আমার অনুমান, তো, এটা বাস্তবে ভিন্ন হওয়া খুবই স্বাভাবিক। তবে গীকবেঞ্চ থেকে যে আপকামিং স্মার্টফোনগুলোর খবর বলেছি, এগুলো যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য।

Leave a Reply