বাজেট ফোন তৈরির একটা সাধারণ রেসিপি আছে। কিছু কমন ফিচার সব বাজেট ফোনেই থাকবে, তারপর কিছু এরিয়াতে একটু বেশি দেয়া হবে, আর বাজেট মেইনটেন করার জন্য অন্য কিছু এরিয়াতে স্যাক্রিফাইস করা হবে। কিন্তু সিম্ফনি তাদের নতুন ফোনগুলোতে এই অলিখিত নিয়ম যেন প্রায় ভঙ্গ করছে, যেখানে রেসিপি হলো বাজেটের মধ্যে যা কিছু এক্সপেক্টেড সবকিছু, তার সাথে আরো একটু বেশি।

এবং যদি নতুন বাজারে আসা Symphony Z60 Plus-কে নিয়ে বলতে হয়, ওপরের কথাটা আসলে খুব একটা বাড়িয়ে বলা হবে না। ১১,৯৯৯ টাকার অ্যাগ্রেসিভ প্রাইসিংয়ে আসা এই ফোনটি হয়ত আরো হায়ার এন্ড ফোনের সাথে তুলনাযোগ্য হবে না, তবে ১০-১৫ হাজার টাকা বাজেটের একটি স্মার্টফোন থেকে যা কিছু চাওয়া যেতে পারে, সবকিছু থাকছে এখানে- এক প্যাকেজে, এক ফোনে।

পূর্বে রিলিজ হওয়া Symphony Z60 অলরেডি বাজেটের মধ্যে একটা দারুণ প্যাকেজ ছিলো- গ্লাস ব্যাক পার্ট, 18 W ফাস্ট চার্জিং, হায়ার রিফ্রেশ রেট, সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের মত ফিচারগুলো একে একই বাজেটের অন্যান্য ফোন থেকে বিশেষত্ব দিয়েছিলো, আর তার সাথে সুন্দর ডিজাইন, ডিসেন্ট পারফর্মেন্স ও ব্যাটারী ব্যাকআপ। Z60 Plus-এ থাকছে এর সবই- তার সাথে থাকছে ইম্প্রুভড চিপসেট, বেশি র‌্যাম-রম এবং আপগ্রেডেড ক্যামেরা।

আরো ডিটেইলে যাওয়ার আগে, এই লেখাটা হ্যান্ডস-অন-এক্সপ্রেরিয়েন্সের ভিত্তিতে নয়। আমি নিজে Symphony Z60 Plus কিংবা Z60 কখনোই ব্যবহার করিনি। মূলত অফিসিয়ালি এভেইলেবল স্পেকসের ওপর ভিত্তি করে এটি লেখা হয়েছে, পাশাপাশি কিছু ক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়াতে Z60 ইউজারদের মন্তব্যের ভিত্তিতে। তো রিয়েল লাইফে হয়ত লেখার সাথে কিছু তারতম্য থাকতে পারে।

Z60 Plus এর ডিজাইন Z60-র অনুরূপ, তবে ভিন্ন দুটি কালারে এসেছে- সিম্ফনির ভাষায় reflective blue ও metallic silver। এর ডিজাইনকে আমি অ্যাপ্রিশিয়েট করব। একইসাথে মিনিমাল ও প্রিমিয়াম একটা লুক। বিল্ড ম্যাটেরিয়ালেও প্রিমিয়ামনেসের ছোঁয়া আছে, এর 2.5D গ্লাস ব্যাক আর তার সাথে প্লাস্টিক সাইড ফ্রেমে মেটাল কোটেড একটা ফিনিশিং থাকছে। তবে এই গ্লাস ব্যাকের জন্য প্রয়োজন হবে বাড়তি সতর্কতা, কেননা বিশেষ করে ব্যাক কভার ব্যবহার না করলে এটা পড়ে গেলে ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

সামনের দিকে 6.6″ HD+ ডিসপ্লেটিতে থাকছে পাঞ্চহোল কাটআউট এবং 90 Hz রিফ্রেশ রেট। ইনসেল আইপিএস টেকনোলজির এই ডিসপ্লেটির 480 nits ব্রাইটনেস বেশিরভাগ সিচুয়েশনের জন্য যথেষ্ট ব্রাইট, তবে এই বাজেটের ডিভাইস থেকে সরাসরি ডে-লাইটে কিছুটা স্ট্রাগল করাটা এক্সপেক্টেড। সব মিলিয়ে বাজেটে এটা চমৎকার একটা ডিসপ্লে এক্সপ্রেরিয়েন্স দিতে পারে।

এবার আরেকটু ডিপে যাওয়া যাক। হার্ডওয়্যারের কথা বললে এর চিপসেট Unisoc T616, যেটা ভালো পারফর্মিং একটা চিপসেট এবং এই বাজেটে কিন্তু এর থেকে বেশি চাওয়া যায় না। প্রায়সই আমরা T606 দেখে থাকি এরকম দামে, T616 তার অনুরূপ CPU ও GPU স্ট্রাকচার নিয়ে আসলেও কোরগুলো হায়ার ক্লক এবং ক্যামেরা প্রসেসিংসহ অন্য বিভিন্ন দিকেও এটা জাস্ট বেটার। দুটো A75@2.0 GHz ও ছয়টি A55@1.8 GHz কোর নিয়ে এর অক্টাকোর সিপিইউ। জিপিইউ Mali G57 1core@750 MHz।

এর GPU সিঙ্গেল কোর হওয়াতে কিছু ক্ষেত্রে Helio G70, G80 এমনকি T610 এর থেকে বেটার জিপিইউ পারফর্মেন্স দেখাতে পারে। তবে সিপিইউ পারফর্মেন্স ও অন্যান্য কথা বললে এটা বাজেটের মধ্যে সেরাদের কাতারে। সবমিলিয়ে G70 বা G80-র মত চিপসেটগুলোর সাথে এটা সমানে সমানে কম্পিট করতে সক্ষম, এবং কিছুক্ষেত্রে বরং বেটার।

তবে আরো ইন্টেরেস্টিং ব্যাপার থাকছে এর মেমোরি ও স্টোরেজ সেকশনে। Z60 Plus মেমোরি ও স্টোরেজের ক্ষেত্রে ব্যবহার করছে uMCP (UFS-based multichip package) প্রযুক্তি। uMCP হলো DRAM মেমোরি ও UFS স্টোরেজের সমন্বিত চিপ। Projukti-র রিভিউ থেকে দেখা যাচ্ছে Z60 Plus-এর সিকুয়েন্সিয়াল রিড স্পিড 770 MB/s, এবং সিকুয়েন্সিয়াল রাইট স্পিড 0.97 GB/s, যা এই বাজেট, বা আরো কিছুটা হায়ার বাজেটের প্রায় যেকোন ফোন থেকে বেটার।

ডিসেন্ট চিপসেট, ফাস্ট মেমোরি-স্টোরেজ প্রযুক্তি, হায়ার রিফ্রেশ রেট সবকিছু মিলিয়ে হার্ডওয়্যারের দিক থেকে ডে-টু-ডে ইউসেজ, স্ক্রলিং থেকে শুরু করে মোটামুটি ইনটেন্সিভ ইউসেজ পর্যন্ত Symphony Z60 Plus একটা স্মুথ এক্সপ্রেরিয়েন্স ডেলিভার করার সক্ষমতা রাখে।

ক্যামেরার কথায় আসলে ইউজার ফিডব্যাক থেকে যেমনটা দেখলাম, স্ট্যান্ডার্ড Z60-র ক্যামেরা ইউজারদের অনেককে সন্তুষ্ট করতে পারেনি, অবশ্য পরে আপডেটের মাধ্যমে অনেকটাই ইম্প্রুভমেন্ট আনা হয়েছে। Z60 Plus নতুন একটি 50 MP f/1.8 ক্যামেরা সেন্সর এডপ্ট করেছে প্রাইমারী সেন্সর হিসেবে, সাথে 2 MP ডেপথ সেন্সর এবং ফ্রন্টে থাকছে একটি 8 MP f/2.0 ক্যামেরা।

Symphony Z60-এর ক্যামেরা 52 MP বলা হলেও একচুয়ালি তা সফটওয়্যার ভিত্তিক Super Pixel টেকনোলজি ব্যবহার করে 52 MP আউটপুট এনে দিতো, একচুয়াল 52 MP সেন্সর সেখানে ছিলো না। তবে Tech to the Point-এর রিভিউয়ে দেয়া তথ্য অনুযায়ী Symphony Z60 Plus ব্যবহার করেছে Samsung ISOCELL GN1 সেন্সর, এবং একটা একচুয়াল 50 MP সেন্সর। কাজেই বেটার সেন্সর ও বেটার ইমেজ প্রসেসিং এবিলিটির জন্য এর ক্যামেরা পারফর্মেন্স ভালো এক্সপেক্ট করা যেতে পারে, অন্তত Z60 থেকে ইম্প্রুভড হওয়ারই কথা।

Z60 Plus-এ থাকছে 5000 mAh ক্যামেরা ও সাথে 18 W টাইপ C ফাস্ট চার্জিং। uMCP5 প্রযুক্তি ও 12 nm টেকনোলজির সমন্বয়ে এটা থেকে ডিসেন্ট ব্যাকআপ আশা করা যায়।

একটা বাজেট ফোনের আর সবকিছু অসাধারণ দেখার পর সেন্সর সেকশনে আসলে প্রায়সই আমাকে একটু ডিজেপয়েন্টেড হতে হয়। এবং Z60 Plus-ও এখানে ব্যতিক্রম হচ্ছে না। এখানে অনুপস্থিত কম্পাস সেন্সর ও জাইরোস্কোপ। পাশাপাশি Android 12 নিয়ে এসেছে এটি, যেটা আবারো একটু দুঃখজনক। Android 13 রিলিজের বেশ অনেকটা সময়ই হয়েছে। তবে Android 13 যেহেতু খুব হিউজ চেঞ্জও আনেনি, তাই বোধহয় এটা ডিলব্রেকিং পর্যায়ের না।

সব মিলিয়ে, Z60 Plus বাজেটের মধ্যে একটি অলরাউন্ডার স্মার্টফোন যা প্রায় সব দিকেই দারুণ কিছু অফার করছে। রিয়েল লাইফ এক্সপ্রেরিয়েন্সে যদি স্পেকসের প্রতিফলন ঘটে, তাহলে এটা মার্কেটে জোস কিছুই হতে যাচ্ছে।

অফিসিয়াল ওয়েবপেজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *