স্লিম,স্টাইলিশ ডিজাইন নিয়ে ইনফিনিক্স নোট ১২-র আগমন! বাজেটে কেমন এটা?

গতকাল(২৫/০৪/২০২২) ইনফিনিক্স নোট ১২ ফোনটি লঞ্চ হয়েছে। ইনফিনিক্স বরাবরই ভালো স্পেকের সাথে ভালো দামে ফোন লঞ্চ করছে। বিশেষ করে ১৫ হাজারের আশেপাশের বাজেটটাকে তারা বোধহয় বেশ ভালোভাবেই টার্গেট করেছে,কারণ এই বাজেটেই তাদের ফোনগুলোর স্পেক বেশ কম্পিটিটিভ। গত দুবছর ধরে এমন চিত্র-ই দেখে আসছি আমরা।

তবে এবারের নোট ১২ নিয়ে আশাবাদী থাকলেও কিছুটা হলেও ডিজাপয়েন্টমেন্ট থাকছে। কারণ ১৮ হাজার রেঞ্জ আরো কয়েকটি কম্পটিটরের সাথে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা যাচ্ছে না। এমনকি তাদের প্রিভিয়াস মডেল ১১এস(৬/১২৮,১৫১৯০টাকা)ও বেটার প্রাইজে আরেকটু বেটার কনফিগারেশন অফার করছে।

ইনফিনিক্স নোট ১২ যে ফিচারগুলো হাইলাইট করেছে তা হলো এর অ্যামোলেড ডিসপ্লে, Helio G88 প্রসেসর, স্লিম বডির সাথে সুন্দর ডিজাইন এবং সবশেষে 5000 mAh ব্যাটারীর সাথে 33W ফাস্ট চার্জিং। তবে সত্যি বলতে কী, এখন এমন একটা সময়ে আমরা চলে এসেছি, প্রতিটা কোম্পানি-ই তাদের মত করে মার্কেট ধরে রাখার জন্য লড়াই করছে এবং এখানে খুব একটা ইউনিক ফিচারের সাথে কারো আউটস্ট্যান্ডিং হয়ে দাঁড়ানোটা বেশ কঠিন।

একটা পয়েন্টে ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রায় সবারই পছন্দ হবে, তা হলো ডিজাইন। এই বাজেটের অন্যতম সুন্দর একটি ফোন নোট ১২। এটি 7.9 mm স্লিম, ওজনে ১৮৪.৫ গ্রাম। এখানে তারা দারুণ করলেও বিল্ড ম্যাটেরিয়ালে কিন্তু কম্প্রোমাইজেশন থাকছে, যেহেতু এটা সম্পূর্ণ প্লাস্টিক বিল্ড।

এর 6.7″ FHD+ রেজ্যুলেশনের 20:9 রেশিওর অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এটাও একটা ভালো সেলিং পয়েন্ট, এই দামে Redmi Note 11 ছাড়া তেমন কেউ কিন্তু অ্যামোলেড ডিসপ্লে দিচ্ছে না। তবে এর প্যানেলটি 60Hz, হায়ার রিফ্রেশ রেটের ভক্তদের জন্য যেটা একটা ডিজেপয়েন্টমেন্ট। প্রসঙ্গত, Redmi Note 11 এর ডিসপ্লে কিন্তু 90Hz এবং বেশ ব্রাইট একটি প্যানেল। ১০০০নিটস ব্রাইটনেস রয়েছে এমন দাবি Infinix অফিসিয়াল সাইটের ।

নচ নিয়ে বলতেই হয়। পাঞ্চহোলের কাছে নচ ইতোমধ্যেই পরাজিত হয়েছে বলা চলে। বেশিরভাগ ব্যবহারকারী পাঞ্চহোল প্রিফার করেন বলেই অনুমান করা যায়। অনেকের জন্য নচ দেয়াটা ডিলব্রেকিংও হতে পারে। তবে নচ বেশি প্রিফার করা কেউ যদি এখনো থেকে থাকেন, এখন তাহলে এই বাজেটে আপনার জন্য একটি অপশন রইলো।

যদিও ডিসপ্লে নিয়ে সমস্যাটা মূলত স্যামসাং-এর মিড বাজেট ফোনে দেখা গেছে, তবে অ্যামোলেড ডিসপ্লের সাথে ডিসপ্লে প্রটেকশন সম্পর্কে কোন তথ্য না থাকাটা একটা কনসার্ন বটে। এর দাম অনুযায়ী গরিলা গ্লাস থ্রি প্রটেকশন এক্সপেক্ট করাটা মনে হয় খুব দোষনীয় ছিলো না।

পারফর্মেন্স সেকশনে G88 বাজেট হিসেবে ঠিক আছে, তবে বিশেষ কিছু নয়। অবশ্য এর সাথে ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ তারা দিচ্ছে, যেটা ভালো।

ইনফিনিক্স ও টেকনোর ক্যামেরা সেকশনে অনেকবারই দেখেছি বেশ কয়েকটি ক্যামেরা দিলেও কার্যত মেইন ক্যামেরাটাই এখানে ইউজফুল। বাকিগুলো মূলত শোভা ও সংখ্যাবর্ধক লেন্স, সহায়ক বলবো না। 50MP মেইন ক্যামেরা ও সেলফি ক্যামেরা 16MP, শুনতে ভালোই শোনায়। তবে টেক চ্যানেল এ.টি.সি.-র টেস্ট অনুযায়ী এর ক্যামেরা পারফরম্যান্স ছিল ডিসেন্ট।অর্থাৎ এভারেজের চেয়ে সামান্য একটু ব্যাটার।নট দা বেস্ট/নট দা টপ নচ।

সেন্সরের দিক থেকে জাইরোস্কোপ ও কম্পাস সেন্সর সহ প্রয়োজনীয় সেন্সরগুলো থাকছে। থাকছে ডুয়াল স্পিকার। 5000 mAh ব্যাটারীর সাথে এর স্লিমনেস ও লাইটনেস বেশ ফ্যাসিনেটিং। 33W ফাস্ট চার্জিং সমর্থন আরেকটি এডভান্টেজ। তবে বলে রাখি, Redmi Note 11, Narzo 30, Narzo 50 এরাও কিন্তু 30W-33W ফাস্ট চার্জিং অফার করছে।

সবশেষে, Infinix Note 12 আগের মত এবার আর তত এগ্রেসিভ প্রাইসিং করেনি, তবে মনে রাখতে হবে এটা ৬/১২৮ জিবি নিয়ে এসেছে, তাই এটাকে ওভারপ্রাইসড কিন্তু বলা যায় না। এটা যা অফার করছে, তা বেশ ভালোই, তবে কম্পিটিশনের মার্কেটে Redmi 10 (2022), Redmi Note 11, Narzo 30, Narzo 50-এর মত কম্পিটিটররাও পিছিয়ে থাকছে না, আপনি এই বাজেটের একজন ক্রেতা হলে সবদিকে দেখেই নিজের সিদ্ধান্ত নিবেন।

Leave a Reply