১৫ হাজারে সত্যিই কি ভালো ডিল ইনফিনিক্স নোট ৮আই?

Infinix Note 8i এই ডিভাইসটি ২৫ তারিখে লঞ্চ হলো আমাদের দেশে। তবে অন্য কিছু দেশে অনেক আগে থেকেই এভেইলেবল ছিলো এটি, ভারতসহ ইনফিনিক্স বিজনেস করে, এমন দেশগুলোতে। বাংলাদেশে এর দাম রাখা হয়েছে ১৪৯৯০ টাকা। আমার কাছে এইদামে বেশ প্রমিসিং ডিভাইস মনে হয়েছে এটাকে। কেন তা আমি আলোচনা করছি আমার পোস্টে।

কম্পিটিটর- এর কিন্তু বেশ কিছু শক্ত কম্পিটিটর আছে, রেডমি ৯, পোকো এম৩, নারজো ২০, পোকো এম২। তবে ইনফিনিক্স কম্পিটিটরদের জন্য যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং করেই Note 8i তৈরি করেছে।

ডিজাইন- ডায়ামন্ড কাট প্যাটার্ন বেশ ভালোই দেখায়। ব্যাকপার্টে কিন্তু কোন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই, যেহেতু তা সাইড মাউন্টেড।

ব্যাটারি এন্ড চার্জিং- গতানুগতিক ইনফিনিক্স ফোনের সিগনেচার বড় ব্যাটারি এতেও থাকছে স্বাভাবিক। ফোন টিকে পাওয়ার করছে ৫২০০ এমএএইচের একটা ব্যাটারি। সাথে১৮ ওয়াট চার্জিং সাপোর্টেড

ডিসপ্লে- এই সেক্টর মনে হয় বলার অপেক্ষা থাকে না, ইনফিনিক্সের কী- সেলিং পয়েন্ট বড় ডিসপ্লে’র কথা। থাকছে ৬.৭৮ ইঞ্চ এইচডি+( হ্যা এইচডি+ নট ফুল এইচডি‌) একটি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে। হ্যা, ফুল এইচডি ডিসপ্লে নেই। তার মানে তো এইনা যে ফোনই ভালো হবে না। যদি মার্কেট বিবেচনা করা হয়, তাহলে শাওমি বাদে এইদামে কেউ ফুলএইচডি+ ডিসপ্লে দেয়না। তো এইটা স্বাভাবিক ধরেই চললাম

চিপ্সেট- এখন আসা যাক এর মূল হট স্পট, চিপ্সেট ও র‍্যাম/রোম ভেরিয়েন্ট নিয়ে
জ্বী, এখানেই চমক আছে। গতানুগতিক ইনফিনিক্সের কম পাওয়ারফুল চিপ্সেটের খেলা এখানে তারা খেলিনি। এইদামে কম্পিটিশন যা দিচ্ছে ইনফিনিক্স ও ঠিক তাই দিচ্ছে। হেলিও জি৮০ থাকছে এতে। সাথে আরো আছে অপো, ভিভোর সিগনেচার বেশী র‍্যাম ও রোম। অপো, ভিভোর কাছে আমাদের কমপ্লেইন থাকে র‍্যাম রোম বেশি দিলেও চিপসেটে কম্প্রোমাইজ করার। সেখানে ইনফিনিক্স পাওয়ারফুল চিপসেট+বেশি র‍্যাম ও রোম একসাথে দিচ্ছে এইদামে। ৬/১২৮জিবি ভেরিয়েন্ট পাওয়া যাবে ১৫হাজারে।

ক্যামেরা- এটাও বলতে গেলে একটা হট স্পট নোট ৮ আই এর জন্য। পিছে থাকছে ৪৮মেগাপিক্সেলের মেইন সেন্সর। ২মেগাপিক্সেল ডেপথ, ২মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স, আর ২মেগাপিক্সেলের এ.আই লেন্স। আর সামনে সিংগেল একটা ৮মেগাপিক্সেল সেন্সর আছে। পিকচার কোয়ালিটি বেশ ভালোই হতে পারে। তাছাড়া, ভিডিও’র ক্ষেত্রেও এটা বেশ এগিয়ে আছে। যেমন এইদামে ২কে ভিডিও রেকর্ডিং সাপোর্ট। মানে ১৪৪০পি তে ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে এই ডিভাইস দিয়ে। তবে এটায় নতুন না, এর আগেও রিয়াল্মি ৫আই তে এইদামে ৪কে সাপোর্ট করতো। তবে ৫আই কিন্তু এখন মার্কেট আউট। তাই সেটা আর সেভাবে তুললাম না।

তো, ইনফিনিক্সের থেকে এরকম একটা গুড ডিল আশা করেছিলাম না, যেহেতু আগে তারা এতটা এগ্রেসিভ প্রাইসিংসহ বলা চলে একটা কমপ্লিট প্যাকেজ আনেনি। তবে তারা যে এইদামে ভালো কাজ করেছে তা এপ্রিসিয়েট করার মতো। সব কিছু ভালো এমন ও না। খারাপ জিনিস ও আছে। তবে তা আগের ইনফিনিক্সের তুলনায় খুব কম। তাই আর আলোচনা করিনি। ধীরে ধীরে ইনফিনিক্স ও অন্য কিছু চাইনিজ ম্যানুফ্যাকচারারদের মতো বেশ ভালো হট ডিল দিচ্ছে।

অফিসিয়াল ওয়েবপেজ

Leave a Reply