বাংলাদেশে কেন সচারচর ফ্যানে তিনটি পাখা (ব্লেড) থাকে? কিছু দেশে কেন চার বা পাঁচ পাখার প্রচলন বেশি?

তো, বাজারে কিছু কিছু চার বা পাঁচ পাখার ফ্যান পাওয়া যায়, কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, আমাদের অধিকাংশ বাসাবাড়ি কিংবা অফিসে আমরা তিন ব্লেডের ফ্যান ব্যবহার করে থাকি। তবে একটা মজার ব্যাপার হলো বাংলাদেশসহ এই অঞ্চলের দেশগুলো যেমন, ভারত, পাকিস্তান বা শ্রীলঙ্কা এবং আরো বিভিন্ন দেশে আপনি এমন দৃশ্য দেখলেও আমেরিকা বা কানাডার মত অনেক দেশে চার বা পাঁচ পাখার ফ্যানের প্রচলন অনেক বেশি। কেন এমনটা হয়, এটা নিয়েই এই লেখা।

আসলে একটি ফ্যান থেকে কতটা বাতাস পাওয়া যাবে তা অনেকগুলো বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। যেমন, ব্লেড কতটা হেলানো রয়েছে, আকৃতি কেমন বা কত গতিতে ঘুরছে প্রভৃতি। তো এখানে পাখার সংখ্যা কিন্তু একমাত্র নিয়ামক নয়। তবে পাখার সংখ্যার ওপরও কয়েকটি বিষয় নির্ভর করে।

ফ্যানের কাজ কিন্তু এসির মত শীতল বাতাস তৈরি করা না, বরং ফ্যান বাতাসের প্রবাহ ঘটায়। পাখার সংখ্যা বেশি হলেই যে বাতাস বেশি হবে, এরকম কোন ব্যাপার নেই, বরং বেশি পাখার ক্ষেত্রে মোটরে অ্যারোডায়ানামিক টান বেশি হয়, তাই ফ্যানের গতি কমে যায়। তাই যেখানে বাতাসের প্রবাহ বেশি প্রয়োজন, সেখানে দুটো বা তিনটি পাখার ফ্যান ব্যবহার করা হয়, যেমন আমরা দেখি বায়ুকলে বা বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিয়াল ব্যবহারে।

বাংলাদেশের মত অঞ্চলে ফ্যান এককভাবে বাতাস পাওয়ার জন্য ব্যবহার হয়ে থাকে। এখানে তিনটি পাখার ফ্যান আধুনিক, পর্যাপ্ত বায়ু প্রবাহ, আরামদায়ক ও ইফিশিয়েন্ট ধরা হয়। তবে একটা ব্যাপার হলো ফ্যানের পাখার সংখ্যা যত কম হবে, শব্দ তত বেশি তৈরি হবে। যেহেতু ফ্যান বাতাসের প্রবাহ ঘটাচ্ছে, তাই বেশি পাখা থাকলে পাখাপ্রতি প্রবাহের জন্য বায়ুর পরিমাণ কম হবে, ফলে শব্দও কম তৈরি হবে।

যে দেশগুলোতে এসির ব্যবহার বেশি অর্থাৎ এসির বাতাস সঞ্চালনে ফ্যানের ব্যবহার হয়, সেখানে শব্দ যেন কম উৎপন্ন হয়, এই ব্যাপারটি গুরুত্ব পায়। এক্ষেত্রে তিন পাখার পরিবর্তে চার পাখা বা পাঁচ পাখা বেশ আদর্শ। আরেকটা ব্যাপার হলো এক্ষেত্রে পাখা থেকে পাখার দূরত্ব কম বলে বাতাসের প্রবাহে একটা ধ্রুবতা থাকে।

তো, সংক্ষেপে, এটাই কারণ যে কেন আমাদের দেশে তিন পাখার ফ্যান এবং কিছু দেশে আরো বেশি পাখার ফ্যানের জনপ্রিয়তা বেশি।

সহায়তা:

Leave a Reply