ইউনিসক টাইগার সিরিজের চিপসেটগুলো বেশ ইন্টেরেস্টিং, এন্ট্রি লেভেলের নতুন চ্যালেঞ্জার হতে যাচ্ছে?

এন্ট্রি লেভেল থেকে লোয়ার মিড রেঞ্জে আমরা এখন রাজত্ব দেখছি মিডিয়াটেকের, বিশেষ করে তাদের Helio G সিরিজের। এবং মনে হচ্ছে এখন তাদের জন্য একটি নতুন চ্যালেঞ্জার চলে এসেছে, চাইনিজ SoC ম্যানুফ্যাকচারার ইউনিসকের পক্ষ থেকে। তাদের ‘Tiger’ সিরিজের চিপসেটগুলো বেশ ইন্টেরেস্টিং এবং কম্পিটিটিভ মনে হয়েছে আমার কাছে।

এন্ট্রি লেভেলে ইউনিসক এখনও কিন্তু বেশ পরিচিত নাম। সবচেয়ে লো এন্ড ফোনগুলোতে SC7731E, লো-এন্ড 4G ফোন, বিশেষ করে ৪-৬ হাজারে SC9832E দেখা যায়। তবে বেশি জনপ্রিয় হলো SC9863A, যা সবচেয়ে কম দামের মধ্যে একটি অক্টাকোর প্রসেসর, যেখানে ARM Cortex A55 কোর ব্যবহার হয়েছে, ৬-৯ হাজার টাকায় এটা খুবই জনপ্রিয়। অবশ্য 28nm HPC+ প্রসেস টেকনোলজি এর একটি উইকনেস।

কিন্তু এখন তারা নতুন একটি লাইনআপ নিয়ে এসেছে, টাইগার সিরিজ। এই সিরিজের ৪টি চিপসেট রয়েছে এখন অবধি, T310, T610, T618 আর T710।

T310

T310 এর মধ্যে সবচেয়ে জোস লেগেছে, কারণ এটি একটি কোয়াড কোর চিপসেট হলেও বিশেষ করে সিঙ্গেল কোর পারফর্মেন্সে এটা থেকে দারুণ কিছু এক্সপেক্ট করা যায়, কেননা এটি আমার দেখা প্রথম কোয়াড কোর স্মার্টফোন চিপসেট, যেখানে ১টি বিগ কোর তথা হাই পারফর্মিং ARM Cortex A75@2.0GHz কোর থাকছে, বাকি তিনটি কোর A55@1.8GHz, যেখানে মেইনস্ট্রিম কোয়াড কোর চিপসেটগুলো A53 কিংবা A7 কোর দেখা যায়।

GPU সেক্টরে বেশ পুরনো একটি জিপিইউ এখানে দেয়া হয়েছে, IMG PowerVR GE8300, তবে ক্লকস্পিড বেশ উচ্চ দিয়েছে, 800 MHz। তবে এটা 720*1600 রেজ্যুলেশন সমর্থন করে, অর্থাৎ FHD+ ডিসপ্লে সমর্থন থাকছে না এই চিপসেটে। এখানে থাকছে 4G সমর্থন। সর্বোচ্চ 16MP+8MP ক্যামেরা এতে সমর্থিত। আর এর প্রসেস টেকনোলজি কিন্তু 12nm, মানে এটা ব্যাটারী সাশ্রয়ী।

সবমিলিয়ে এটা বলা চলে স্মার্টফোনের জন্য এখন পর্যন্ত তৈরি অন্যসব কোয়াড কোর চিপসেটগুলো এবং কিছু অক্টাকোর চিপসেট থেকেও বেশি পাওয়ারফুল। বর্তমানে যে ধরণের স্মার্টফোনগুলোতে আমরা Helio A20 বা UNISOC SC9863A দেখি, তার পরিবর্তে সামনে T130 দেখলে মন্দ হয় না!

T610 ও T618

মিডিয়াটেকের Helio G70 চিপসেটটি আমরা প্রচুর স্মার্টফোনে দেখেছি। এটার সাথে T610 আর T618-র প্রচুর মিল আছে। T610, G70 থেকে খানিকটা লোয়ার ক্লক, T618 G70-র কাছাকাছি, স্লাইটলি হায়ার ক্লক। যদি আমি Helio G35-এর কথা বলি, T610 কিন্তু তার থেকে অনেক বেটার, মিডিয়াটেকের বুদ্ধি ফলো করে নামটা G610 বানাই দিলেও পারতো 🙄

বাই দা ওয়ে, Helio G70-র মত দুটি A75 ও ছয়টি A55 সিপিইউ কোর, আর Mali G52 3EE 2-core জিপিইউ থাকছে UNISOC T610 আর T710-এ, পার্থক্য ক্লকস্পিডে। T610-এ সিপিইউ আর জিপিইউ কোরগুলোর ক্লকস্পিড যথাক্রমে 1.8GHz ও 614.4MHz, যা T618-র বেলায় 2.0GHz ও 850MHz।

ক্যামেরার ব্যাপারটি ইউনিসক বিশেষভাবে উল্লেখ করেছে। এখানে ৩ কোরের ISP, পঞ্চম জেনারেশন ইমেজ ইঞ্জিন ও উন্নতমানের ডিসপ্লে প্রসেসিং টেকনোলজি সমন্বয়ে উচ্চ মানের ছবির অভিজ্ঞতার কথা বলা হয়েছে। T610 ও T618 যথাক্রমে সর্বোচ্চ 32MP ও 64MP ক্যামেরা সমর্থিত। চিপসেটদুটো 12 nm প্রসেসের তৈরি। স্টোরেজ টাইপ হিসেবে সর্বোচ্চ eMMC 5.1 সমর্থিত, UFS প্রযুক্তি সমর্থন নেই।

এই চিপসেটগুলো যে জনপ্রিয় হবে তার একটি আভাস কিন্তু ইতোমধ্যেই আমরা পাচ্ছি। Honor Play 20 খুবই রিসেন্টলি রিলিজ হয়ে গেছে UNISOC T610-এর সাথে। দেশীয় ব্র্যান্ড সিম্ফনিও তাদের আপকামিং Symphony Z33-তে এটা ব্যবহার করেছে বলে গীকবেঞ্চে দেখা যাচ্ছে। ZTE Axon 20 লঞ্চ হয়েছে T

T710

এই চিপসেটটি ২০১৯ সালে আয়োজিত ১৪ তম “Chinese chips”-এর “Excellent Technology-innovative Product”-এ বিজয়ী হয়েছে। এখানে উচ্চমানের AI সক্ষমতা থাকছে। রয়েছে ২ কোরের নিউরাল প্রসেসিং ইউনিট এবং AI রিলেটেড বিভিন্ন এডভান্সড ফিচার।

এর সিপিইউ-ও পাওয়ারফুল, কেননা এতে চারটি হাই পারফর্মিং ARM Cortex A75@2.0GHz ও চারটি A55@1.8GHz কোর থাকছে। ফ্ল্যাগশিপ বাদে ২-এর বেশি A75 বা বেটার কোর কিন্তু দুর্লভ। জিপিইউ হিসেবে থাকছে IMG 9446@800 MHz, এবং এটা কিন্তু QHD+ 3200*1440 ডিসপ্লে সমর্থন করে।

তবে এখানেও প্রসেস 12nm থাকছে। ক্যামেরা হিসেবে 24MP কিংবা পিক্সেল বিনিং টেকনোলজিতে 48MP সমর্থনের সাথে 4K@30FPS এনকোডিং/ডিকোডিং এবং EIS সহ বিভিন্ন ফিচার ইন্টিগ্রেটেড থাকছে।

ইন্টেরেস্টিংলি, এতে সেলুলার কিংবা LTE টেকনোলজির ঘরে NA দেয়া, সম্ভবত এর সাথে আলাদা সেলুলার মডেম ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। এমনকি এই চিপসেট যদিও ওয়েবসাইটে 5G সেকশনে রাখা হয়নি, এর Ivy V510 5G মডেম যুক্ত করে তৈরি T7510 চিপসেট (সোর্স: GIZMOCHINA) দেয়া হয়েছে Hisense F50 5G ডিভাইসে।

Loading spinner

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You may use these <abbr title="HyperText Markup Language">html</abbr> tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

*