সহজেই ফেসবুকের মত একটি সোশ্যাল মিডিয়া তৈরি করে নিন (ওয়ার্ডপ্রেস টিউটোরিয়াল)

আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, তারপরও কেউ কেউ হয়ত প্রশ্ন তুলতে পারে, তাই শুরুতেই একটি সংশয় নিরসন করে নিই, আর তা হলো ফেসবুকের মত বলতে আমি অবশ্যই ফেসবুক গ্রেড বা ফেসবুক কোয়ালিটি বোঝাচ্ছি না, কেননা সেরকম কিছু অবশ্যই একটা টিউটোরিয়াল দেখে ‘সহজেই’ ‘প্রায় বিনামূল্যে’ করে ফেলা সম্ভব না, আমি বোঝাতে চাচ্ছি এমন একটা সাইট যেখানে এখানে একটা টাইমলাইন থাকবে, কেউ চাইলে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে, পোস্ট করতে পারবে, লাইক-কমেন্ট-শেয়ার মেসেজ করতে পারবে এরকম।

প্রশ্ন আসতে পারে, কেন আমার নিজের একটি সোশ্যাল মিডিয়া তৈরি করার প্রয়োজন হবে, যেখানে ফেসবুক, টুইটার, টেলিগ্রামসহ অনেক অনেক সোশ্যাল মিডিয়া ইতোমধ্যেই আছে এবং তাদের হিউজ ইউজারবেসও রয়েছে। এর উত্তর হলো, আমি জানি না। হতে পারে আপনার এটার কোন দরকার নেই, জাস্ট মনে চাইলে বানাতে পারেন, অথবা এমন কিছু হয়ত আপনার প্রয়োজন থাকতে পারে যা অন্য সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে সম্ভব না, যেমন হয়ত কোন প্রতিষ্ঠান বা কমিউনিটির জন্য এটা বিশেষায়িত করলেন বা শুধু নিজের বন্ধুদের মাঝে সীমিত রাখলেন বা এমন কিছু যা যা বাকিদের থেকে আলাদা।

তো, ওয়ার্ডপ্রেসে এরকম একটা সাইট তৈরি করা কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে বেশ সহজ, আর সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো, আমরা এজন্য যে থিম, প্লাগইনস প্রভৃতি ব্যবহার করব, তার সবই ফ্রি। কাজেই আপনাকে শুধুমাত্র ডোমেইন ও হোস্টিংয়ের জন্য খরচ করতে হচ্ছে। যদি শুধু প্রাক্টিসের উদ্দেশ্য হয়, সেক্ষেত্রে লোকালহোস্টে করা যেতে পারে, এতে কোন খরচ নেই।

ভালো হয় যদি হোস্টিং, ডোমেইন, লোকালহোস্ট, ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে বেসিক কিছু আইডিয়া আপনার থাকে, না থাকলেও চেষ্টা করলে আশা করি পারবেন, আমি প্রয়োজনীয় ব্যাপারগুলো সংক্ষেপে কভার করার চেষ্টা করেছি, আর তাছাড়া প্রয়োজনে ডাকডাকগো (😃) তো আছেই।

আর যারা ওয়ার্ডপ্রেসে কিছুটা দক্ষ, তাদের হয়ত মনে হতে পারে লেখাটিতে অনেক অপ্রয়োজনীয় বিষয় আছে, আসলে আমি চেয়েছি যারা খুব একটা দক্ষ না তারাও যেন টিউটোরিয়ালটি বুঝে বুঝে ফলো করতে পারে, এজন্য একটু বুঝিয়ে লেখার চেষ্টা করেছি। আর লেখার মধ্যে /something এরকম দেখবেন, মনে করবেন বোঝানো হয়েছে আপনার ডোমেইন নামের পর সেটি বসবে, যেমন, neonbati.com/something।

হোস্টিং ও ডোমেইন

আমাদের ওয়েবসাইটটি হোস্ট করার জন্য আমাদের হোস্টিং ও ডোমেইন প্রয়োজন হবে। আপনি আপনার পছন্দের কোম্পানি থেকে তা কিনে নিতে পারেন। বাংলাদেশে বেশ কিছু বিশ্বস্ত ডোমেইন-হোস্টিং প্রোভাইডার আছে, যাদের থেকে আপনি একটি প্যাকেজ নিতে পারেন। যেমন, ExonHost, XeonBD, Hostever বাংলাদেশের জনপ্রিয় কিছু প্রোভাইডার। এবং আমি বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই HostingHubs, কেননা তারা আমাদের জানুয়ারী মাসের স্পন্সর, যাচাই করতে পারেন তাদের সার্ভিস।

যাইহোক, এর বাইরেও আরো অনেক প্রোভাইডার আছে, আপনি পছন্দমত বিশ্বস্ত কারো থেকে নিতে পারেন। তবে একটু সতর্ক থাকবেন, সবার সার্ভিস সমান নয়, অনেকে অবিশ্বাস্য মূল্যে অনেক হিউজ স্পেস হয়ত অফার করতে পারে, যার সার্ভিসই নিতে চান না কেন, আগে তাদের সার্ভিসের রিভিউ একটু যাচাই অবশ্যই করে নিবেন।

আর অনেকরকম প্যাকেজও আছে দেখবেন, যা খুবই কনফিউজিং হতে পারে। আপনার সাইটে কতটি ছবি বা ভিডিও বা অন্যান্য কিছু আপলোড হতে পারে, তার আকার কোথায় গিয়ে পৌছাতে পারে সেটা একটু চিন্তাভাবনা করে নিবেন। যাইহোক, পরবর্তীতে প্যাকেজ পরিবর্তন সম্ভব। হোস্টিং ডোমেইন কেনার পর নেমসার্ভার আপডেট, এসএসএল ইন্সটল এরকম কিছু প্রাথমিক কাজ থাকে। প্রোভাইডারেরা সাধারণত কাস্টমারদের প্রয়োজনীয় সাপোর্ট দিয়ে থাকে। এসংক্রান্ত সহায়তার জন্য আপনার প্রোভাইডারের সাপোর্টে যোগাযোগ করতে পারেন।

লোকালহোস্ট

অথবা আপনি প্রাক্টিসের জন্য লোকালহোস্ট ব্যবহার করতে পারেন, এক্ষেত্রে সাইটটি অনলাইন হবে না, শুধু আপনার পিসি থেকে ব্যবহার করা যাবে, লার্নিংয়ের জন্য যেটা একটা ভালো উপায়। তো এক্ষেত্রে আপনার ডোমেইন-হোস্টিংয়ের খরচ দরকার হচ্ছে না। লোকালহোস্ট কনফিগারের জন্য XAMPP ব্যবহার মোটামুটি সহজ। তো, এই টিউটোরিয়ালে আমি এ নিয়ে বিস্তারিত বলছি না। অনলাইনে বিভিন্ন টিউটোরিয়াল আছে, আপনার পছন্দের প্রোভাইডার থেকে নিতে পারে।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল

লোকালহোস্টে কাজ করার ক্ষেত্রে, যদি আপনি XAMPP ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে এখান থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড ও ইন্সটল করে নিন। আর যদি কোন হোস্টিং প্যাকেজ কিনে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনার সিপ্যানেলে লগইন করুন এবং দেখুন এখানে Softaculous Apps Installer একটি অপশন থাকার কথা। যদি না থাকে, সেক্ষেত্রে ম্যানুয়ালি ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড, আপলোড ও ডেটাবেজ কানেক্ট করে নিতে হবে, যা আমরা আলোচনা করছি না, কেননা প্রায় সব হোস্টিংয়ের ক্ষেত্রেই আপনি Softaculous পেয়ে যাবেন।

এখান থেকে আমরা Scripts থেকে WordPress-এ ক্লিক করছি। পরের স্ক্রিনে আমরা Install Now-তে ক্লিক করব। এরপরের স্ক্রিনে আমরা ইন্সটলেশনের ডিটেইলসগুলো ঠিকঠাক করে নিয়ে ইন্সটল করব।

সাধারণভাবে ভার্সন হিসেবে লেটেস্ট (বর্তমানে 5.6) সিলেক্ট করতে পারি। যদি এসএসএল কনফিগার করা থাকে, তাহলে https:// প্রটোকল ব্যবহার করা উচিৎ। ডোমেইন হিসেবে social.awesomia.com সাবডোমেইন ব্যবহার করেছি, এরকম সাবডোমেইন সিপ্যানেল থেকে সহজেই তৈরি করা যায়, এখানে দেখুন। যদি মেইন ডোমেইনে করতে চান, সেক্ষেত্রে সেটি সিলেক্ট করুন, সাবডোমেইন দরকার নেই। সাধারণভাবে ডিরেক্টরীর ঘর খালি রাখুন।

এরপর Name, Description দিন। Multisite আমার দরকার হচ্ছে না, এটা একই ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলেশনের অধীনে একাধিক সাইট ম্যানেজের জন্য। এরপর ইউজারনেম, পাসওয়ার্ড, এডমিন ইমেইল নির্বাচন করুন ও নিরাপদভাবে এই তথ্যগুলো সংরক্ষন করুন। এরপরের Language হলো ড্যাশবোর্ডের ভাষা, আমি English-ই রাখছি। প্লাগইনস, এডভান্সড অপশনস, থিম এগুলোর কোন পরিবর্তন আপাতত করছি না। সবশেষে ইন্সটল করছি।

আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল হয়ে গেছে, আমরা যদি সাইটটি ভিজিট করি, তাহলে ওপরের মত দেখতে পাচ্ছি। তো, এখন এই ওয়ার্ডপ্রেস সাইটটি নিয়ে আমরা কাজ করব। ইন্সটলেশন শেষে এখন আমরা /wp-admin ডিরেক্টরী (যেমন এক্ষেত্রে https://social.awesomia.com/wp-admin/) থেকে ড্যাশবোর্ডে নির্ধারণকৃত ইউজারনেম-পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে আমরা সাইটটি ম্যানেজ করতে পারি।

BuddyBoss

ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য একটি চমৎকার প্লাগইন আছে, BuddyBoss। এটি যেকোন ওয়ার্ডপ্রেস সাইটকে সোশ্যাল মিডিয়াতে পরিণত করতে পারে। এটা তৈরি হয়েছে জনপ্রিয় একটি প্লাগইন BuddyPress-কে ভিত্তি করে, যেটিও একই কাজের জন্য এবং অনেক বেশি জনপ্রিয়, তবে ফিচার ও ফাংশনালিটিতে BuddyBoss সহজেই বেটার অপশন। তাছাড়া BuddyPress এর জন্য তৈরি বিভিন্ন থিম-প্লাগইনস BuddyBoss-এও কাজ করে।

ভালো ব্যাপার হলো BuddyBoss মূল প্লাগইনটি একদমই ফ্রি। ডাউনলোড করে নিন এখান থেকে। তারপর ড্যাশবোর্ড থেকে Plugins>Add New>Upload Plugin থেকে ডাউনলোড করা zip ফাইলটি আপলোড করে একটিভ করে নিতে হবে।

হোমপেজ এখনো আগের মতই দেখাবে। কিন্তু /news-feed বা /members এ গেলে দেখা যাচ্ছে নিউজ ফিড বা প্রোফাইল ডিরেক্টরীর মত ফিচারগুলো যুক্ত হয়েছে। কিন্তু দেখতে এটা ঠিক ভালো দেখাচ্ছে না। দক্ষতা আর প্রচুর সময় থাকলে CSS এডিট ও অন্যান্য কাস্টমাইজেশনের মাধ্যমে একে সুন্দর করা যেতে পারে, কিন্তু সহজ অপশন হলো, আমরা BuddyBoss-এর জন্য বিশেষায়িত কোন থিম ব্যবহার করতে পারি।

BuddyX থিম

বাডিবসের নিজস্ব থিম রয়েছে, যা বেশ আকর্ষণীয়, তবে এজন্য তাদের যে প্যাকেজ নিতে হবে, তার দামটা মোটেও আকর্ষণীয় নয়, রেগুলার রেট $228 থেকে শুরু। আরো কিছু পেইড থিম আছে, যাদের দাম কিছুটা কম। তবে আমরা ব্যবহার করছি BuddyX থিম, যার একটি ফ্রি ভার্সন রয়েছে আর এটি দেখতেও বেশ চমৎকার এবং ফিচারের দিক দিয়েও পর্যাপ্ত।

এটা আলাদাভাবে ডাউনলোড করে নেয়ার প্রয়োজন নেই, Dashboard>Appearence>Themes>Add New থেকে Buddyx সার্চ দিয়ে সরাসরি ইন্সটল করে নেয়া যায়। তো, আমি থিমটি ইন্সটল ও একটিভ করে নিলাম।

এখন সাইটটি কিন্তু আগের থেকে বেশ সুন্দর দেখাচ্ছে। অবশ্যই আমাদের আরো বেশ কিছু কাজ করতে হবে, সাইটটি কাস্টমাইজ করে সাজিয়ে-গুছিয়ে নিতে হবে।

Kirki Toolkit

থিম ইন্সটলের পর ওপরের মত একটি ডায়ালগ দেখতে পারেন। অর্থাৎ, BuddyX থিমটি BuddyPress, Elementor Page Builder ও Kirki Toolkit রেকমেন্ড করে। বাডিপ্রেস আমাদের দরকার নেই, যেহেতু বাডিবস ব্যবহার করছি। এলিমেন্টরও আপাতত প্রয়োজন হচ্ছে না। শুধু Kirki Toolkit ইন্সটল করছি, এটা কাস্টমাইজারে অনেক অপশন যুক্ত করবে। এই ডায়ালগ থেকে Begin installing plugins-এ গিয়ে বা Plugins>Install Plugins/Add New থেকে সার্চ করে প্লাগইনটি ইন্সটল ও এক্টিভ করে নিন।

BuddyBoss Components

সোশ্যাল মিডিয়াটিতে কী কী ফিচার থাকবে বা থাকবে না তা নিয়ন্ত্রণের জন্য Dashboard>BuddyBoss>Components থেকে প্রয়োজনমত কম্বোনেন্ট এক্টিভ বা ডিএক্টিভ করে নেয়া যেতে পারে। যেমন আমরা কানেকশন, মেসেজিং, গ্রুপ, ছবি-ভিডিও আপলোড, ফোরাম প্রভৃতি ফিচার যোগ করতে পারি।

সোশ্যাল গ্রুপ, মিডিয়া আপলোড, মেসেজিং, ইমেইল ইনভাইট নিয়ে কিছু বলার নেই। মেম্বার কানেকশনস হলো ফেসবুকে এড ফ্রেন্ড ফিচারের মত, ফোরাম বিভিন্ন টপিকভিত্তিক আলোচনার জন্য, নেটওয়ার্ক সার্চ হলো সার্চের ক্ষেত্রে কোন কোন স্থান থেকে সার্চ করা হবে তা নিয়ন্ত্রণের জন্য। আমি সবগুলোই এনাবল করে নিলাম। আপনার যদি মনে হয় এর কোনটি আপনার দরকার নেই, তাহলে সেটি ডিএক্টিভ রাখুন।

রেজিস্ট্রেশন চালু করা

যেহেতু এটা একটা সোশ্যাল মিডিয়া, স্বাভাবিকভাবেই আপনি চাইবেন যেন কেউ চাইলে এখানে রেজিস্ট্রেশন করতে পারে। এজন্য Dashboard > BuddyBoss > Settings > General > Registration > Enable Registration > Allow non-members to register new accounts চেকবক্সটি মার্ক করে সেটিংস সেভ করে নিন।

পেজ কনফিগার করা

বাডিবস সংশ্লিষ্ট পেজগুলো ঠিকঠাক করতে Dashboard > BuddyBoss > Pages-এ যেতে হবে। তবে ভালো ব্যাপার হলো প্রায় সবকিছু অটোমেটিকভাবে কনফিগার করা আছে, আর সদস্যদের আপলোডকৃত ডকুমেন্টগুলো এক পেজে দেখাতে চাইলে এখান থেকে এক ক্লিকেই একটি পেজ ক্রিয়েট করে নিতে পারেন।

আর প্রাইভেসি পলিসি পেজ তৈরি করতে চাইলে আগে Dashboard > Pages > Add New থেকে আপনার পলিসিগুলো সহ একটি পেজ তৈরি করে পাবলিশ করে নিন, তারপর BuddyBoss Pages পুনরায় লোড করে এসে আপনার তৈরিকৃত পেজটি Privacy Policy ড্রপডাউন থেকে সিলেক্ট করে সেভ করে নিন।

প্রোফাইল টাইপ

কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনার একাধিক ধরণের প্রোফাইল দরকার হতে পারে। যেমন ধরা যাক, আপনি একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সোশ্যাল নেটওয়ার্ক বানাচ্ছেন। তো, আপনি হয়ত চাইবেন দুই ধরণের প্রোফাইল টাইপ থাকবে, একটি শিক্ষকদের, যেখানে তার প্রোফাইলে পদবি, পাঠদানের বিষয় এরকম তথ্যগুলো থাকবে আর অন্যটি ছাত্রদের, যেখানে তার শ্রেণি, রোল এরকম তথ্য থাকবে।

আপনার যদি প্রয়োজন না থাকে, তাহলে তো নেই, আর যদি থাকে, তো এটা বেশ সহজে সম্ভব। Dashboard > BuddyBoss > Settings > Profiles > Profile Types > Enable profile types to give members unique profile fields and permissions অপশনটি চেক করে দিন ও সেভ করুন।

সেভ করার পর পেজটি রিলোড হলে আরো কিছু অপশন পাবেন। প্রোফাইলে ধরণ ডিসপ্লে করবে কিনা তা এখান থেকে কনফিগার করতে পারেন এবং ডিফল্ট প্রোফাইল টাইপ নির্ধারণ করতে পারেন। কিন্তু তার আগে আমাদের প্রোফাইল টাইপগুলো তৈরি করে নিতে হবে।

এজন্য Dashboard > BuddyBoss > Profiles > Profile Types > Add New এ যেতে হবে। খেয়াল করুন, আগেরবার Settings > Profiles এ গিয়েছিলাম, এবার সরাসরি Profiles এ যাচ্ছি, কনফিউজ হবেন না।

এখানে একটি টাইটেল, একবচন ও বহুবচনে লেবেল কী প্রদর্শিত হবে তা নির্ধারণ করতে হবে। মেম্বারদের ডিরেক্টরীতে এই টাইপের প্রোফাইল ফিল্টার করা যাবে কিনা তা নির্ধারণ করতে পারেন এবং চাইলে ডিরেক্টরীতে এই টাইপের মেম্বারদের হাইড করে রাখতে পারেন। আর ইউজাররা নিজেরাই এই টাইপটি সিলেক্ট করতে পারবে কিনা (নাকি শুধু এডমিনরাই কাউকে এই টাইপ প্রোফাইল করে দিতে পারবে) সেটিও নির্ধারণ করতে পারেন।

মেম্বার ডিরেক্টরী (/members) থেকে টাইপ ফিল্টার করা

ওয়ার্ডপ্রেস রোল বলতে ওয়ার্ডপ্রেসের ওপর কতটা কন্ট্রোল পাবে তা। সাধারণভাবে মেম্বারদের আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ডে একসেস দিতে চাইবেন না, সেক্ষেত্রে সাবস্ক্রাইবার সিলেক্ট রাখুন। সবশেষে সেভ করুন। একইভাবে অন্য টাইপগুলোও তৈরি করে নিন।

প্রোফাইল ফিল্ড ও রেজিস্ট্রেশন ফর্ম

একজন সদস্যের প্রোফাইলে কী কী ফিল্ড থাকবে (যা রেজিস্ট্রেশন ফর্মেও যুক্ত হবে) আমরা তা নির্ধারণ করে দিতে পারি। Dashboard > BuddyBoss > Profiles > Profile Types থেকে ফিল্ডগুলো এডিট বা নতুন ফিল্ড যুক্ত করা যায়। এক্ষেত্রে ফিল্ডটির একটি টাইটেল অবশ্যই দিতে হবে। অনেক ক্ষেত্রে আপনি এর সাথে বিকল্প একটি টাইটেল দিতে চাইতে পারেন, যেমন তারা উদাহরণ দিয়েছে Age এর বিকল্প হলো “How old are you?” তো আপনি চাইলে দিতে পারেন, অপশনাল।

এরপর একটি ইন্সট্রাকশন যুক্ত করে দিতে পারেন, যাতে সদস্যরা বুঝতে পারে ফিল্ডটি কীভাবে পূরণ করতে হবে। রিকুয়ারমেন্ট হিসেবে অপশনাল বা রিকুয়ার্ড রাখতে পারেন। যদি একাধিক প্রোফাইল টাইপ তৈরি করে থাকেন কোন টাইপের সদস্যদের ক্ষেত্রে ফিল্ডটি প্রযোজ্য সেটি সিলেক্ট করে দিন। এবং এই ফিল্ডটি সদস্যদের প্রোফাইল থেকে কারা দেখতে পাবে এবং এই ভিজিবিলিটি সদস্যরা নিজ নিজ প্রোফাইলের জন্য পরিবর্তন করতে পারবে কিনা তাও ঠিক করে দিন।

Type যে ড্রপডাউনটি দেখছেন, এখানে তথ্যের ধরণ, যেমন, টেক্সট, নাম্বার, ড্রপডাউন প্রভৃতির মধ্যে কোনটি তা নির্ধারণ করতে হবে। এখানে গুরুত্বপূর্ণ একটি টাইপ হলো Profile Type, অর্থাৎ, যদি চান যে সদস্যরা নিজেদের প্রোফাইল টাইপ পরিবর্তন করতে পারবে, তাহলে অবশ্যই “Profile Type” টাইপটি সিলেক্ট করে একটি ফিল্ড তৈরি করবেন, যেমনটা ছবিতে দেখানো হয়েছে।

এখন আমি যদি /register এ যাই, তাহলে আমরা নতুন ফিল্ডগুলো দেখতে পাচ্ছি। যদি কোন ফিল্ড শুধু নির্দিষ্ট টাইপের জন্য নির্ধারিত থাকে, সেক্ষেত্রে টাইপ সিলেক্টের পর সে ফিল্ডগুলো দেখাবে। লক্ষ্যণীয়, লগইন করা থাকলে /register অটোমেটিক / এ রিডাইরেক্ট হয়ে যাবে, তাই চেক করার জন্য লগ আউট করে নিতে পারেন বা অন্য ব্রাউজার বা প্রাইভেট/ইনকোগনিটো মোড ব্যবহার করতে পারেন।

কাস্টমাইজেশন

Dashboard>Appearance>Customize থেকে আমরা বিভিন্ন কাস্টমাইজেশন অপশন পাবো। এখানে গুরুত্বপূর্ণ হলো Kirki Toolkit ইন্সটল না থাকলে অনেক ফিচার পাওয়া যাবে না, এবং এক্ষেত্রে “A plugin is required to take advantage of this theme’s features in the customizer.” লেখা দেখাবে। তো আগে যদি প্লাগইনটি ইন্সটল করা না থাকে, তাহলে আগে ইন্সটল করে নিন, ওপরে এটা নিয়ে লেখা আছে। এখানে প্রচুর অপশন আছে, আপনি কালার, টাইপোগ্রাফিসহ বিভিন্ন কাস্টমাইজ করতে পারবেন, আর আমি অবশ্যই এর সব নিয়ে বিস্তারিত দেখাচ্ছি না, আপনি অপশনগুলো এক্সপ্লোর করে পছন্দমত কাস্টমাইজ করে নিতে পারেন, তবে গুরুত্বপূর্ণগুলো দেখিয়ে দিচ্ছি।

হোমপেজ

ডিফল্ট হোমপেজে ব্লগের লেটেস্ট পোস্টগুলো দেখায়, যা সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য ঠিক আদর্শ নয়। তাই আমরা Customize > Homepage Settings > Your homepage displays > A static page থেকে Homepage হিসেবে News Feed এবং Posts Page হিসেবে একটি নতুন পেজ Blog নামে ক্রিয়েট করে সেট করলাম।

এখন / থেকে নিউজ ফিড আর /blog থেকে লেটেস্ট পোস্টগুলো দেখা যাবে।

সাইডবার

Customize > Site Sidebar থেকে আমরা তিনটি অপশন দেখতে পাচ্ছি। প্রথমটি সাইটের সাধারণ পেজগুলো যেমন, কোন ব্লগ পোস্ট বা প্রাইভেসি বা যোগাযোগ এধরণের পেজের সাইডবার লেআউট, দ্বিতীয় বাডিপ্রেস পেজগুলো যেমন, নিউজ ফীড, প্রোফাইল প্রভৃতির জন্য, যা বাডিবসের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য আর তৃতীয়টি bbPress, যা ফোরামের একটি প্লাগইন।

তো, আপনার মর্জিমত সাইবার লেআউটগুলো সিলেক্ট করে দিন, আর স্টিকি সাইডবার সিলেক্ট রাখলে সাইডবার ডেস্কটপে স্ক্রল করার সময় স্টিকি থাকবে পেজের নিচের দিকে চলে না আসা পর্যন্ত।

ফুটার কপিরাইট সেকশন

ফ্রি থিম হলেও BuddyX আপনাকে ফুটার ক্রেডিট রাখা বা না রাখার সুযোগ দেয়। Customizing > Site Footer > Copyright Section থেকে আপনি এই সেকশনের টেক্সট পরিবর্তন করতে পারেন।

উইজেট

কাস্টমাইজার থেকেও উইজেট কনফিগার করা যায়, তবে লিমিটেশন আছে, সুবিধাজনক হলো Dashboard > Appearance > Widgets থেকে করা। তো আমি এভাবে সেট করে নিলাম, আপনি পছন্দমত সাজিয়ে নিবেন।

এই পর্যায়ে আমাদের হোমপেজ দেখতে নিচের মত:

মেনু

মেনুও কাস্টমাইজার থেকে এডিট করা যায়, তবে Dashboard > Appearance > Menus থেকে করা সুবিধাজনক মনে হয়। থিমে দুটো মেনু লোকেশন আছে, একটি প্রাইমারি, যা হেডারে দৃশ্যমান হবে, অন্যটি ইউজার মেনু, যা প্রোফাইলের ড্রপডাউন হিসেবে থাকবে। আমি পরে একটু পরে ছবিসহ দেখিয়েছি। প্রথমে Primary লোকেশনের জন্য একটি মেনু ক্রিয়েট করে নিলাম।

এখন বাম পাশে Add Menu Items বক্স থেকে পছন্দমত আইটেম মেনুতে যুক্ত করতে পারি। এর মধ্যে বাডিবস রিলেটেড আইটেমগুলো দুভাগে আছে, একভাগ যা কেবল লগড ইন অবস্থায় দৃশ্যমান হবে, অন্যভাগ কেবলমাত্র লগড আউট অবস্থায়।

যাই হোক, প্রাইমারি মেনু আমি নিজের মত তৈরি করে নিলাম। আর আপনি চাইলে মেনুর কোন আইটেম ড্রাগ এন্ড ড্রপ করে সাব আইটেম তথা ড্রপডাউনও তৈরি করতে পারেন, উদাহরণ হিসেবে ছবিতে Members সাব আইটেম করে দেখিয়েছি।

সাব আইটেমগুলো এভাবে প্রদর্শিত হয়:

এখন ছবিতে যদি খেয়াল করেন, সার্চ, মেসেজ, নোটিফিকেশন, ইউজার প্রভৃতি প্রদর্শিত হচ্ছে। এটা আলাদাভাবে সেট করতে হবে না। প্রাইমারি মেনু সেট করার পর অটোমেটিকলি এটা প্রদর্শিত হয়, লগ আউট অবস্থায় লগ ইন ও রেজিস্টার বাটন দেখায়।

এরপর ইউজার মেনু, এটা শুধু লগড ইন অবস্থায় প্রদর্শিত হয়, তাই এখানে আমি বাডিবস রিলেটেড আইটেমগুলো রাখছি। Create a new menu থেকে ইউজার মেনু লোকেশন সিলেক্ট করে আগের মতই নতুন একটি মেনু তৈরি করে নিলাম এবং আইটেম ও সাব আইটেম যোগ করে সেভ করলাম।

সাইট আইডেন্টিটি (লোগো, টাইটেল, সাবটাইটেল, আইকন)

যেকোন সাইটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই ব্যাপারগুলো, কেননা এরা সাইটের পরিচয় বহন করে। Customize >Site Identity থেকে লোগো, টাইটেল, সাবটাইটেল ও আইকন সেট বা পরিবর্তন করতে পারেন। ডিজাইন আমার মাথায় খুব একটা আসে না, শর্ট টাইমে একটা কিছু তৈরি করে সেট করে দিলাম। Display Site Title and Tagline আনচেক করে দিয়েছি, যেহেতু একটি লোগো যোগ করেছি।

Profile Navigation

Customize > BuddyBoss Platform > Profile Navigation থেকে কারো প্রোফাইল ভিজিট করলে কোন ট্যাব ডিফল্ট, কোনটির পর কোনটি দেখাবে, ভার্টিকালি না হরাইজন্টালি ট্যাবগুলো থাকবে প্রভৃতি ঠিকঠাক করে নিতে পারেন।

BP Better Messages

ফেসবুকের মত ফ্লোটিং চ্যাট সুবিধাসহ ভালোভাবে বাডিবস/বাডিপ্রেস ইন্টিগ্রেটেড কোন ফ্রি কম্পোনেন্ট আমি পাইনি। তবে বাডিবসের ডিফল্ট মেসেজিং সিস্টেম থেকে BP Better Messages আমার অনেক বেটার মনে হয়েছে। Dashboard > Plugins > Add New থেকে সার্চ করে এটি ইন্সটল ও একটিভ করে নিন।

এরপর ড্যাশবোর্ডে Better Messages একটি ট্যাব যুক্ত হবে, সেখান থেকে এটির সেটিংসগুলো প্রয়োজনমত কাস্টমাইজ করে নিতে পারেন। যেমন, Better Messages > Messages > Only Friends Mode চেক করে দিলে শুধু যারা কানেক্টেড (তথা ফ্রেন্ড) তারাই পরস্পরকে মেসেজ দিতে পারবে। এরপর Attachments > Enable files চেক করে দিলে ফাইল আদান-প্রদান করা যাবে, সাথে কোন কোন এক্সটেনশন এলাও হবে তা ঠিক করে দিতে পারেন। অন্য অপশনগুলোও দেখতে পারেন, আমি আর বিস্তারিত বলছি না।

Hide Toolbar

হেডারের ওপরে প্রদর্শিত প্যানেল আমার মনে হয় ভালো দেখাচ্ছে না। তো, আমি এটা হাইড করে রাখতে চাই, এজন্য Dashboard > BuddyBoss > Settings > General > General Settings > Toolbar থেকে অপশনগুলো আনচেক করে দিলাম।

লগইন পেজ

বাডিবস একটি কাস্টম রেজিস্টার পেজ তৈরি করে এবং সাথে চাইলে সাইডবার বা ফুটারে আপনি লগইন উইজেট লাগিয়ে নিতে পারেন। কিন্তু সাধারণ লগইন পেজ যেটি সেটি ওয়ার্ডপ্রেসের ডিফল্টটিই থেকে যায়, যা বাকি সাইটের সাথে খুব একটা মানানসই না।

তো, WordPress Login Form প্লাগইনটি আমরা ইন্সটল করে নিচ্ছি, Add Plugins থেকে সার্চ দিয়ে এটা পেতে পারেন।

এরপর Dashboard > Settings > Clean Login থেকে নিচের মত করে লগইনের পর হোমপেজে রিডাইরেকশন চালু করে দিলাম।

Pages > Add New। ব্লক এডিটর (ডিফল্ট) এর ক্ষেত্রে নিচের মত শর্টকোড ব্লক যোগ করে [clean_login] কোড যোগ করতে হবে, ক্লাসিক এডিটর ব্যবহার করলে সরাসরি [clean_login] লিখতে হবে। টাইটেল Login, পার্মালিঙ্ক login, পেজ এট্রিবিউটস > টেমপ্লেট > Page-Without-Sidebar রেখে পাবলিশ করলাম।

এখন Customize > General > Page Mapping > Login Page হিসেবে নতুন তৈরিকৃত পেজটি সেট করে দিলাম।

এখন এটা এরকম দেখাচ্ছে:

তো, আমার কাছে এটা ভালো দেখাচ্ছে না। তাই আমি যেটা করব, তা হলো কিছু সিএসএস যুক্ত করব। Customize > Additional CSS এ নিচের কোডগুলো যোগ করে দিন এবং সেভ করুন:

.cleanlogin-container{
width:300px!important;
max-width:100%!important;
padding:10px!important;
}
.cleanlogin-form-bottom{
display:none!important;
}

এখন এটা এরকম:

ফোরাম

মনে আছে, কম্পোনেন্টের মধ্যে Forum একটি অপশন ছিলো? বিস্তারিত এটা নিয়ে বলছি না, শুধু সংক্ষেপে বলি, কম্পোনেন্টটি এনাবল থাকলে Dashboard > BuddyBoss > Forums > Add New থেকে নতুন একটি ফোরাম করতে পারবেন।

এখন সদস্যরা ফোরামটি দেখতে পাবে, তার অধীনে ডিসকাশন টপিক তৈরি করতে পারবে এবং সে বিষয়ে আলোচনা করতে পারবে।

Activity Settings

আপনি হয়ত চাইতে পারেন সদস্যরা তাদের এক্টিভিটি (যেমন পোস্ট) এডিট করতে পারুন, লিঙ্ক যুক্ত থাকলে প্রিভিউ প্রদর্শিত হোক। এই সেটিংসগুলো Dashboard > BuddyBoss > Settings > Activity ট্যাব থেকে সেট করে নিতে পারেন। আর আমি হাইলি রেকমেন্ড করব সেটিংসগুলো নিজে নিজে এক্সপ্লোর করে দেখতে যেহেতু আমি সবকিছু মেনশন করিনি।

সবশেষে

তো, আমাদের সাইটটি এখন বেশ প্রস্তুত। অবশ্যই আরো অনেককিছু আপনি এখানে যুক্ত করতে পারেন, পরিবর্তন আনতে পারেন। তবে টিউটোরিয়ালের জন্য যথেষ্ট হয়েছে বোধ করছি। এখন সাইটটি এরকম দেখাচ্ছে।

আরেকটু ভেতর থেকে এক্সপ্লোর করতে আপনি আমাদের সাইটটি ঘুরে আসতে পারেন, একটি আইডিও খুলে নিতে পারেন। তবে অবশ্যই নিয়নবাতির সব প্রজেক্টের সাধারণ নিয়ম, ইসলামের দৃষ্টিতে জায়েজ নয় অথবা অসামাজিক এমন কোন কনটেন্ট যুক্ত করবেন না।

ভিজিট করুন:

Loading spinner

6 Replies to “সহজেই ফেসবুকের মত একটি সোশ্যাল মিডিয়া তৈরি করে নিন (ওয়ার্ডপ্রেস টিউটোরিয়াল)”

  1. says: December 24, 2020 at 10:01 pm

    সেই 😐

  2. Unnamed says: December 25, 2020 at 9:27 am

    Excellent 😱

    1. neonbati says: December 25, 2020 at 9:55 am

      শুকরিয়া ভাই 😊

  3. ibrahim says: January 1, 2021 at 9:27 pm

    খুব সুন্দর

    1. neonbati says: January 1, 2021 at 9:59 pm

      শুকরিয়া, জাজাকাল্লহু খইরন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You may use these <abbr title="HyperText Markup Language">html</abbr> tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

*